তামিম ইকবাল এবং মাহমুদুল হাসান জয়ের ব্যাটিংয়ে দুর্দান্ত শুরু বাংলাদেশের

শ্রীলংকার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম ম্যাচে চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম ইনিংসে ব্যাট করতে নেমে দুর্দান্ত শুরু করেছেন দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং মাহমুদুল হাসান জয়। টস টসে জিতে ব্যাট করতে নেমে অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের ১৯৯ রানের সুবাদে প্রথম ইনিংসে ৩৯৭ রান সংগ্রহ করে শ্রীলঙ্কা।





জবাবে ব্যাট করতে নেমে দ্বিতীয় দিন শেষ বিনা উইকেটে ৭৬ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ। তামিম ইকবাল ৩৫ এবং মাহমুদুল হাসান জয় ৩১ রান করে অপরাজিত রয়েছেন।

এর আগে দিনের শুরুতে ৬ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে ব্যাট করতে নামে সফররত শ্রীলঙ্কা। ব্যাট হাতে বাংলাদেশি বোলারদের শুরু থেকেই শাসন করতে থাকেন আগের দিনের দুই অপরাজিত লঙ্কান ব্যাটার অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস ও দিনেশ চান্দিমাল।

৩৪ রানে দিন শুরু করা চান্দিমাল তুলে নেন ব্যক্তিগত অর্ধশতক। এরপর দেখে-শুনেই খেলে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু লাঞ্চ বিরতির ঠিক দুই ওভার আগে নাঈম হাসানের করা বলে এলবিডব্লিউর ফাঁদে পরেন চান্দিমাল। আউট হওয়ার আগে ১১৪ বল খেলে করেন ৬৪ রান। একই ওভারে নিরোশান দিকভেলাকে শূন্যরানে ফেরত পাঠান নাঈম।

দ্বিতীয় সেশনের খেলার শুরু ওভারেই দুই উইকেট তুলে নেন দেশসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। ১ রানে রমেশ মেন্ডিস এবং শূন্যরানে লঅসিথ এম্বুলদেনিয়া আউট হন।

নবম উইকেট জুটিতে বিশ্ব ফার্নান্দোকে সঙ্গে নিয়ে আবারও প্রতিরোধ গড়ে তুলেছেন ম্যাচের সেঞ্চুরিয়ান অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউস। ইতিমধ্যে এই দুই ব্যাটার মিলে গড়েন অপ্রতিরোধ্য ৪৭ রানের জুটি। এরপর শরিফুলের করা বল ফার্নান্দোর হেলমেটে আঘাত করলে রিটায়ার্ড হার্ট হন তিনি।

অ্যাঞ্জেলো ম্যাথিউসের ডাবল সেঞ্চুরির পথে সঙ্গ দেয়ার জন্য আবারও ব্যাট করতে নামেন বিশ্ব। দেখে-শুনেই খেলছিলেন ম্যাথিউস। এক পর্যায়ে ১৯৯ রানে অবস্থান করে তার ব্যক্তিগত ইনিংস।





১৫৩তম ওভারের শেষ বলে টোকা দিয়ে ১ নিতে চেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু বল ক্যাচ উঠে সাকিবের হাতে। তাতেই ডাবল সেঞ্চুরি হাতছাড়া হয় ম্যাথিউসের। ৩৯৭ বলে খেলা ১৯৯ রানের ইনিংসটি ১৯টি চার এবং একটি ছয়ে সাজানো। এদিকে ১৭ রানে অপরাজিত থাকেন বিশ্ব ফার্নান্দো।