আমার মনে পড়ে না আইপিএল ইতিহাসে বাটলারের মত এমন ব্যাটিং কেউ করেছে কি না : কুমার সাঙ্গাকারা

২০০৮ সালের পর অবশেষে আইপিএলের ফাইনালে উঠতে পেরেছে টুর্নামেন্টের প্রথম আসরের চ্যাম্পিয়ন রাজস্থান রয়েলস। গতকাল নরেন্দ্র মোদি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে জস বাটলারের এবারের আসরের চতুর্থ সেঞ্চুরিতে রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরু বিপক্ষে ৭ উইকেটে জয় লাভ করে ফাইনাল নিশ্চিত করেছে রাজস্থান।





আইপিএলের এবারের আসরে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছেন জস বাটলার। ১৫৮ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে জস বাটলার একাই করলেন ১০৬ রান। বাটলার এবারের আইপিএলে কী অসাধারণ ব্যাটিং করে যাচ্ছেন, তা শুধু তার একটু পরিসংখ্যানের দিকে তাকালেই বোঝা যায়।

এ নিয়ে এবারের আইপিএলে একাই চারটি সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। ১৬ ম্যাচে ৫৮.৮৫ গড়ে রান করেছেন ৮২৪। স্ট্রাইক রেট ১৫১.৪৭। ৪টি সেঞ্চুরির সঙ্গে ৪টি হাফ সেঞ্চুরি। নিঃসন্দেহে অরেঞ্জ টুপির (সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের সম্মান) মালিক তিনি।

দিল্লি ক্যাপিটালসের বিপক্ষে এক ম্যাচে করেছিলেন ১১৬ রান। গতকাল ব্যাঙ্গালুরুর বিপক্ষে খেললেন ১০৬ রানের অপরাজিত ইনিংস। কলকাতা নাইট রাইডার্সের বিপক্ষে খেলেছেন ১০৩ রানের ইনিংস এবং মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে খেলেছেন বরাবর ১০০ রানের ইনিংস। এবারের আইপিএলে মোট ৮টি সেঞ্চুরি হলো, এরমধ্যে এককভাবে চারটিই বাটলারের।

তাইতো জস বাটলারের এমন বিধ্বংসী ব্যাটিংয়ের দারুণ প্রশংসা করেছেন ক্রিকেট কিংবদন্তি এবং রাজস্থান রয়েলসের প্রধান কোচ কুমার সাঙ্গাকারা। তিনি মনে করেন আইপিএলের ইতিহাসে এমন কেউ ব্যাটিং করেছে কিনা সন্দেহ আছে।





ম্যাচ শেষে বাটলারের ব্যাটিং প্রসঙ্গে সাঙ্গাকারা বলেন, “আমার মনে পড়ে না আইপিএল ইতিহাসে কেউ এমন ব্যাটিং করেছে কি না। তাঁর হাতে অনেক স্ট্রোকস। খেলাটাকে খুব ভালো বুঝে সে। ছন্দে থাকলে বাটলারকে আর থামানোর কোনো পথ নেই। যেকোনো সময় রানের গতি বাড়িয়ে ফেলতে পারে সে।”