ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের রেকর্ড ১০৪২ রান করেও মন ভালো নেই আনামুল হক বিজয়ের

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে ব্যাট হাতে ইতিহাস গড়ে ও মন ভালো নেই ব্যাটসম্যান আনামুল হক বিজয়ের। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরে হাজার রান করেছেন আনামুল হক বিজয়। ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে এখনো পর্যন্ত সর্বোচ্চ। ডিপিএলের এবারের আসরে দুর্দান্ত ফর্মে রয়েছে আনামুল হক বিজয়।





টুর্নামেন্টের শুরু থেকেই রয়েছেন দুর্দান্ত ফর্মে। এখন পর্যন্ত ঢাকা লীগের ১৪ ম্যাচের মধ্যে আটটি হাফ সেঞ্চুরি এবং তিনটি সেঞ্চুরি সহ ১০৪২ রান সংগ্রহ করেছেন আনামুল হক বিজয়। তবে এত রান করে ও মন ভালো নেই তার।

তার কারণ ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের এবারের আসরে চ্যাম্পিয়ন হতে পারেনি তার দল প্রাইম ব্যাংক ক্রিকেট ক্লাব। সর্বোচ্চ ২৪ পয়েন্ট নিয়ে প্রথমবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। আর বিজয়ের দল প্রাইম ব্যাংক ১৪ ম্যাচ শেষে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় অবস্থানে।

বিজয় বলেন, “না আসলে টিমকে চ্যাম্পিয়ন করব, এটা চিন্তা করেছিলাম। আসলে এটা হয়নি, এটার জন্য খারাপ লাগছে। কিন্তু চেষ্টা করব যখনই দলে খেলি যেন অবদান রাখতে পারি। এটা পেরেছি, তবে চ্যাম্পিয়ন হতে পারলে আরও ভালো লাগতো। এরকম কোনো লক্ষ্য ছিল না ১ হাজার রান করব।”





তবে দল চ্যাম্পিয়ন না হলেও ব্যক্তিগতভাবে অসাধারণ পারফরমেন্স করেছেন বিজয়। সুপার লিগের আগেই ১০ ম্যাচে ৭২.৮০ গড়ে ও ৯৭.৯৮ স্ট্রাইক রেটে রান করেছিলেন ৭২৮। সুপার লিগের দ্বিতীয় ম্যাচে সাইফ হাসানের ৮১৪ রানের রেকর্ড ছাড়িয়ে যান ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

২০১৩ সালে লিস্ট ‘এ’ মর্যাদা পাওয়ার পর ২০১৯ সালে সাইফ হাসান ৮১৪ রান করেছিলেন ১৬ ইনিংসে। আজ এনামুল ছাড়িয়ে গেছেন নিজেকে। গড়েছেন নতুন কীর্তি। ১৪ ম্যাচ শেষে তার রান ১০৪২। গড় ৮০.১৫। সেঞ্চুরি ৩টি ও হাফ সেঞ্চুরি ৮টি।

বিজয় মনে করেন তার এমন সাফল্যের কোনো গোপন রহস্য নেই। চেষ্টা করেই সফল হয়েছেন, ‘না (গোপন রহস্য প্রশ্নে)। চেষ্টা করেছি ভালো করার, যেটা পেরেছি মনে হয়। আমি আমার শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করেছি। যে টিমে খেলি শতভাগ দিয়ে এভাবে খেলার চেষ্টা করব।”





“আসলে ধারাবাহিকতা খুবই জরুরি প্রত্যেক ক্রিকেটারের জন্য, সে বোলার হোক আর ব্যাটসম্যান। আমি সেটাই চেষ্টা করছি, দোয়া করবেন যেন এরকম ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে পারি।”