চাকরি ছেড়ে দিয়েছি এটা বললে ভুল হবে। আমি বিসিবিকে ই-মেইল করেছিলাম, তারা যোগাযোগ করেনি : ওটিস গিবসন

সমস্যাটা ছিল প্রধান কোচ নিয়ে আর চলে গেলেন ফাস্ট বোলিং কোচ। ২০২০ সালের জানুয়ারিতে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের বোলিং কোচ হিসেবে এসেছিলেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের ওটিস গিবসন। কিন্তু হঠাৎ করেই চাকরি ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজ ছিল তার বাংলাদেশের সাথে শেষ সিরিজ।





এখন তিনি যোগ দিয়েছেন পাকিস্তান সুপার লিগে। তবে বাংলাদেশে থাকতে চেয়েছিলেন’ ওটিস গিবসন। বিসিবির সাথে যোগাযোগ করেও তার সাথে কেউ যোগাযোগ করেনি। যার কারণেই বাংলাদেশ দল ছেড়ে দিয়েছেন তিনি। ডেইলি স্টারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে ওটিস গিবসন বলেন,

“চাকরি ছেড়ে দিয়েছি এটা বললে ভুল হয়। আমার চুক্তির মেয়াদ আসলে শেষ হয়ে যাচ্ছিল। সেই মেয়াদ আর বাড়ছে না বলতে পারেন। আমার পক্ষ থেকে অনাগ্রহ ছিল না। আপনি বিসিবিকে জিজ্ঞেস করে দেখবেন তারা চুক্তি নবায়ন করতে চেয়েছিল কিনা, চাইলে সেটা কবে?

বিসিবির পক্ষ থেকে ওটিস গিবসনের সাথে কোন যোগাযোগ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন তিনি। এমনকি নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সিরিজে চলাকালীন সময়ে খালেদ মাহমুদ সুজনের কাছে জানতে চাইলে তিনি কিছু বলেননি। তিনি আরো বলেন, “শুনেন বিসিবি থেকে কেউ আমার সঙ্গে চুক্তি নিয়ে কোন যোগাযোগই করেনি, কেউ ফোন করেনি”।





“নিজাম চৌধুরী বা ক্রিকেট অপারেশন্স চেয়ারম্যান কেউই না। তাদের কাছ থেকে আমি কোন রেসপন্স পাইনি। আমি গত ২৯ ডিসেম্বর সিইও নিজামউদ্দিনের কাছে একটি ই-মেইল করেছিলাম, তিনি সেটিরও রেস্পন্স করেননি। খালেদ মাহমুদ সুজন এখানে ছিলেন, উনার সঙ্গে এমনিতে কথা হয়েছে। কিন্তু আমার থাকা, না থাকা নিয়ে তিনি কোন মতামত দিতে চাননি”।