কুয়েতকে ৬৯ রানে অলআউট করে ২২২ রানে জয়লাভ করে এশিয়াকাপে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করলো বাংলাদেশ

যুব এশিয়া কাপে নিজেদের প্রথম ম্যাচে সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছিলেন প্রান্তিক নওরোজ নাবিল। এবার দ্বিতীয় ম্যাচে কুয়েত অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে খেলতে নেমে ওপেনার মাহফিজুল ইসলাম রবিন দেখা পেয়েছেন শতকের। তার সেঞ্চুরির ওপর ভর করে কুয়েতের বিপক্ষে ৪৯.২ ওভারে ১০ উইকেট হারিয়ে ২৯১ রান সংগ্রহ করেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব ১৯ ক্রিকেট দল। জবাবে ২৫.৩ ওভারে ১০ উইকেটে ৬৯ রান সংগ্রহ করে কুয়েত।





শনিবার (২৫ ডিসেম্বর) শারজাহ ক্রিকেট স্টেডিয়ামে টস হেরে ব্যাটিং করছে বাংলাদেশ। দ্রুত প্রথম উইকেট হারানোর পর হাল ধরেন রবিন। আইস মোল্লাকে সাথে নিয়ে ৮৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন রবিন। যার মধ্যে তিনি একাই করেন ৬১ রান।

২০ রান করে আইস মোল্লা আউট হলে এরপর আরিফুল ইসলামের সাথে ৫৩ এবং তাহজিবুল ইসলামের সাথে ৪৪ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন রবিন। ২৩ রান করে আরিফুল এবং ২৫ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তাহজিবুল।

তবে অন্য প্রান্ত থেকে সেঞ্চুরি তুলে নিয়ে ১১৯ বলে ১২টি চার এবং তিনটি ছক্কা হাঁকিয়ে ১১২ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মাহফিজুল ইসলাম রবিন। শেষের দিকে ব্যাট হাতে ঝড় তোলেন মেহরাব হোসেন। ২৪ বলে ৪২ রান করেন তিনি। এছাড়াও অধিনায়ক রকিবুল হাসান করেন ২১ রান।

২৯২ রানের টার্গেটে বল করতে নেমে শুরুতেই ৩ উইকেট তুলে নিয়েছে বাংলাদেশ। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে মাত্র ৫ রানের মাথায় প্রথম উইকেট তুলে নেন মুশফিক হাসান। এরপর সাত দিনের মাথায় জোড়া উইকেট তুলে নেন রিপন মন্ডল।

সর্বোচ্চ ৪৩ রান করে শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত লড়াই করেছিলেন কুয়েত যুব দলের অধিনায়ক মিট ভাবসার। ওপেনিংয়ে নেমে আউট হন সবার শেষে। ৭৭ বলে ৫ চারে ৪৩ রান আসে মিটের ব্যাট থেকে। ১১ রান করেন মির্জা আহমেদ। এ ছাড়া দুই অঙ্কের মুখ দেখেননি কোনো ব্যাটসম্যান।





লাল সবুজের যুবাদের হয়ে সর্বোচ্চ ৩ উইকেট নেন রিপন মন্ডল। ২টি করে উইকেট নেন এস এম মেহরব ও রাকিবুল। বি গ্রুপ থেকে বাংলাদেশ এখন শীর্ষে আছে। টানা দুই জয়ে শীর্ষস্থান আরও পাকাপোক্ত হবে। গ্রুপের বাকি দলগুলো হলো শ্রীলঙ্কা, কুয়েত ও নেপাল।