মমিনুল হক এবং ইয়াসির আলির ব্যাটিংয়ে ঢাকা প্রিমিয়ার লিগের শেষ ম্যাচে জয়লাভ করলো গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে নিজেদের শেষ ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে গাজী গ্রুপ ক্রিকেটার্স। লিগের শেষ ম্যাচে আজ শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাবকে ৩৫ রানে হারিয়েছে মাহমুদুল্লাহ রিয়াদের দল। আগে ব্যাট করে শেখ জামালকে ১৮৫ রানের টার্গেট দেয় গাজী গ্রুপ। জবাবে ব্যাট করতে নেমে ১৪৯ রান করেই অলআউট হয়ে যায় শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব।





টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালই করেছিল গাজী গ্রুপের দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান মেহেদি হাসান এবং সৌম্য সরকার। ৪ ওভারে দলের খাতায় যোগ করেন ৩৫ রান। ইনিংসের পঞ্চম ওভারে এই দুইজনের পার্টনারশিপ ভাঙেন জিয়াউর রহমান। এমনকি ওই ওভারে তুলে নেন দুই ওপেনারের উইকেট। ব্যক্তিগত প্রথম বলেই ৯ রান করা সৌম্য সরকারকে ক্যাচ আউট করেন তিনি।

ওভারের চতুর্থ বলে ফেরান দুর্দান্ত খেলতে থাকা মেহেদী হাসানকে। ১৭ বলে তিনটি চার এবং একটি ছক্কার সাহায্যে ২৭ রান করে এবাদত হোসেনের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এরপর দলীয় ৬৮ রানের মাথায় প্যাভিলিয়নে ফেরেন শাহাদত হোসেন। ১১ রান করা এই ব্যাটসম্যানকে প্যাভিলিয়নে ফেরেন ইনামুল হক।

ব্যাটিংয়ে নেমে মাত্র ১ রান করে আফ্রিদির বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ। তবে এরপরে ব্যাটিং ঝলক দেখান মমিনুল হক এবং ইয়াসির আলী।

একপ্রকার ব্যাটিং তাণ্ডব চালান এই দুই ব্যাটসম্যান। ২৪ বলে চারটি চার এবং চারটি ছক্কা সাহায্যে ৫৬ রান করে অপরাজিত থাকেন ইয়াসির আলী। অন্য প্রান্তে ৫৩ বলে ১১ টি বাউন্ডারি হাঁকিয়ে ৭৮ রান করে অপরাজিত থাকেন মমিনুল হক।





১৮৫ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। ১৮ ওভারে ১০ উইকেট হারিয়ে ১৪৯ রান সংগ্রহ করে শেখ জামাল ধানমন্ডি ক্লাব। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৫ রান করেন ইমরুল কায়েস। ৩৩ বলে একটি চার এবং তিনটি ছক্কার সাহায্যে ৪৫ রান করে সৌম্য সরকারের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এছাড়াও তানভীর হায়দার ২৩ বলে ২৯ এবং জিয়াউর রহমান ১১ বলে ২১ রান করেন।