মুশফিকুর রহিম এবং নাঈম শেখের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিল আবহনী লিমিটেড

ঢাকা প্রিমিয়ার লিগে টানা তৃতীয় জয় তুলে নিয়েছে মুশফিকুর রহিমের দল আবাহনী লিমিটেড। আজ ব্রাদার্স ইউনিয়নের বিপক্ষে ৯ উইকেটের বড় ব্যবধানে জয়লাভ করেছে আবহনী লিমিটেড। বৃষ্টির কারণে খেলা ৯ ওভার কমিয়ে ১১ ওভারে করা হয়।





নির্ধারিত ১১ ওভারে আবহনী লিমিটেডকে ১০২ রানের টার্গেটে দেয় ব্রাদার্স ইউনিয়ন। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নাঈম শেখ এবং মুশফিকুর রহিমের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে ৭ বল হাতে রেখেই ৯ উইকেটে জয় লাভ করে আবাহনী লিমিটেড।

আগে ব্যাটিং করতে নেমে শুরুটা ভালোই করেন ব্রাদার্সের দুই ওপেনার মিজানুর রহমান ও জুনায়েদ সিদ্দিকি। জুনায়েদ ধরে খেললেও মিজান খেলছিলেন হাত খুলে।

মিজানকে (১৪ বলে ২০) রানে ফিরিয়ে আবাহনীকে ম্যাচে ফেরান তানজিম হাসান সাকিব। তারপরেই সানি পরপর দুই বলে মায়শুকুর রহমান-রাহাতুল ফেরদাউসকে সাজঘরে ফিরিয়ে ম্যাচের নাটাই নিয়ে নেন নিজেদের হাতে। সানির আক্রমণ সামলে ওঠার আগে আবার আঘাত হানেন সাকিব।

তিনি ফেরান জুনায়েদকে (২৩ বলে ২০) ও হাবিবুর রহমানকে। সাকিব ২ ওভারে মাত্র ৯ রান দিয়ে ৩ ও সানি সমান ওভারে মাত্র ৫ রান দিয়ে নেন ২ উইকেট। তাদের কৃপণ বোলিংয়ের পরও মেহেদী হাসান রানার খরুচে বোলিংয়ে আবাহনীর সামনে কঠিন লক্ষ্য দাঁড়ায়।

শেষ দিকে আলাউদ্দিন বাবু ১০ বলে ২৪ ও জাহিদুজ্জামান ১০ বলে ২৫ রান করেন। রানা মাত্র ২ ওভারে ৩৭ রান দেন। ১১ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১০১ রান করে ব্রাদার্স।

১০২ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান নাঈম শেখ এবং মমিন শাহরিয়ার। ৩.৩ ওভারেই এই জুটি যোগ করেন ৩৮ রান। ১২ বলে ২৫ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মমিন শাহরিয়ার।





বাকি কাজটুকু করে দেন জাতীয় দলের দুই ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম এবং নাঈম শেখ। ২৬ বলে দুইটি চার এবং একটি ছক্কার সাহায্যে ৩৬ রান করে অপরাজিত থাকেন নাঈম শেখ। অন্য প্রান্তে ২১ বলে ছয়টি চারের সাহায্যে ৩৭ রান করে অপরাজিত থাকেন মুশফিকুর রহিম।