রোজা রেখে শ্রীলংকার বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজের জন্য অনুশীলন চালিয়ে যাচ্ছেন মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন

শ্রীলংকার বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের জন্য আজ থেকে পুরোদমে অনুশীলন শুরু করে দিয়েছে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল। আজ দুপুর ৩ টা থেকে শুরু হয় প্রথম দিনের অনুশীলন। শ্রীলংকার বিপক্ষে প্রাথমিক স্কোয়াডে রয়েছেন বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের তরুণ অলরাউন্ডার মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন।

এদিকে ওয়ানডে সিরিজে সাইফুদ্দিন বাংলাদেশ দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ সদস্য। তাই শ্রীলংকার বিপক্ষে চূড়ান্ত স্কোয়াড এমনকি একাদশে ও দেখা যেতে পারে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন কে। শ্রীলঙ্কা সিরিজের জন্য প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছেন তিনি। তবে এই প্রস্তুতি তিনি করছেন রোজা রেখে। আজ অনুশীলন শেষে মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন বলেন,

‘নিউজিল্যান্ড সিরিজে আমরা প্রত্যাশা অনুযায়ী পারফর্ম করতে পারিনি, হোয়াইটওয়াশড হয়েছি। তো এটা আমাদের জন্য খুবই হতাশাজনক। ঘরের মাঠে যেহেতু আমাদের শ্রীলঙ্কার সাথে খেলা, অবশ্যই আমরা চেষ্টা করব এখান থেকে সিরিজ জয়ের জন্য। আমরা রোজা রেখে অনেক পরিশ্রম করছি, যেহেতু সামনে খেলা আছে।’

‘ইনশাআল্লাহ্‌ আমরা আশাবাদী। যেহেতু টেস্ট সিরিজে ওদের মাটিতে হেরে এসেছি, তাই এটা আমাদের জন্য বাড়তি চ্যালেঞ্জ। আমরা যাতে দেশের মাটিতে ওয়ানডে সিরিজ জিততে পারি এবং সুপার লিগের পয়েন্টের একটা ব্যাপার আছে। তাই চেষ্টা করব সেই পয়েন্টগুলা নেয়ার জন্য।’

শুধু নিজের একার পারফরম্যান্স নয়, দলগতভাবে ভালো করার দিকেই জোর দিলেন সাইফউদ্দিন, ‘বিগত কয়েক মাস ধরে আমরা দল হিসেবে প্রত্যাশা অনুযায়ী ভালো খেলতে পারতেছি না। আমাদের জন্য খুব প্রয়োজন এই সিরিজটা ভালো খেলা।





আইসিসি সুপার লিগের পয়েন্টের যেহেতু ব্যাপার আছে, আমাদের দেশের মাটিতে খেলা, প্রতিপক্ষ শ্রীলঙ্কা, অবশ্যই আমরা শতভাগ দিয়ে চেষ্টা করব যেন দলগতভাবে খেলে এখানে সিরিজ জিততে পারি এবং যত পয়েন্ট অর্জন করতে পারি।’

দলীয় পারফরম্যান্সের কথা বললেও, নতুন বলের বোলার হিসেবে নিজের দায়িত্বের কথাও মাথায় আছে তার, ‘অবশ্যই! একটা ম্যাচের প্রথম দশ ওভারের গতিপ্রকৃতি পুরো ম্যাচের ফলাফল নির্ধারণ করে দেয়। তাই বোলারদের জন্য অনেক বড় দায়িত্ব থাকে, প্রথম দশ ওভারে নতুন বলে উইকেট বের করে দেয়া, ইকোনমিক্যাল বল করা,

ওদের টপঅর্ডারের এক-দুইটা উইকেট নেয়া- যেটা আমরা নিউজিল্যান্ড সফরে ব্যর্থ হয়েছি। ইনশাআল্লাহ্‌ চেষ্টা করব এবার। যেহেতু চেনা কন্ডিশন, ঘরের মাঠে মিরপুরে অনুশীলন করছি, আমাদের চেনা উইকেট, ইনশাআল্লাহ আমাদের সর্বোচ্চ দিয়েই চেষ্টা করব, যারাই সুযোগ পাবে যাতে বোলাররা আরও দায়িত্ব নিয়ে খেলতে পারে।’

সাইফউদ্দিন আরও যোগ করেন, ‘প্রত্যাশা অনুযায়ী নিউজিল্যান্ডে ভালো খেলতে পারিনি। যেহেতু ঘরের মাটিতে অনেক আন্তর্জাতিক, ঘরোয়া ম্যাচ খেলেছি, চেনা কন্ডিশন, মিরপুরের উইকেটে তো অবশ্যই চেষ্টা থাকবে যদি সুযোগ পাই ভালো খেলার। যারা খেলবে সবাই নিজেদের সেরাটা দেয়ার চেষ্টা করবে যেহেতু আমরা এখানে অনেক ম্যাচ খেলেছি।’





সাকিব-মোস্তাফিজ ফেরায় দলের ভারসাম্য ভালো হয়েছে জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আমাদের দল এখন অনেক ভারসাম্যপূর্ণ, সাকিব ভাই এসেছেন, মোস্তাফিজ এসেছে, তাসকিন ভাইও ভালো শেপে আছেন, ইনশাআল্লাহ্‌ আমিও যদি সুযোগ পাই। আমাদের ওভারল টিম হিসেবে খুব ভালো কন্ডিশনে আছি। যারাই সুযোগ পাই, যদি আমিও সুযোগ পাই, চেষ্টা করব সেরাটা দেয়ার এবং যতটা ম্যাচ জেতা সম্ভব।’