পাখির মত উড়ে অধিনায়ক টম লাথামের অবিশ্বাস্য ক্যাচ ধরলেন মেহেদী হাসান মিরাজ।

বাংলাদেশের বিপক্ষে তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজের শেষ ম্যাচে টসে জিতে ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালোই করেন নিউজিল্যান্ডের দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান মার্টিন গাপটিল এবং হেনরি নিকলস। তবে দলীয় অষ্টম ওভারের মাথায় উইকেট নেওয়ার সুযোগ পেয়েছিল বাংলাদেশ।

তাসকিন আহমেদের বলে কিপিং থেকে হেনরি নিকলসের ক্যাচ ছাড়েন মুশফিকুর রহিম। তবে এবার আর বেশি বিপদ হতে দেয়নি তাসকিন। কারণ ২ বল পরেই সেকেন্ড স্লিপে দাঁড়িয়ে থাকা লিটন দাসের হাতে ক্যাচ দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন হেনরি নিকলস।

দলীয় ৪৪ রানের মাথায় ১৮ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। পরের ওভারেই ২৬ রান করা মার্টিন গাপটিলকে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রুবেল হোসেন। এর পরেই আবার সুযোগ তৈরি করেন রুবেল হোসেন। রস টেলরের দেওয়া সেই সুযোগ হাতছাড়া করেন মোস্তাফিজুর রহমান।

তবে রস টেলরকে বেশি দূর যেতে দেননি রুবেল হোসেন। ৭ রান করা রস টেলরের ক্যাচ ধরেন মুশফিকুর রহিম। দলীয় ৫৭ রানের মাথায় তিন উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে নিউজিল্যান্ড। তবে এরপর এই ঘুরে দাঁড়ায় নিউজিল্যান্ড। নিউজিল্যান্ডের রানের চাকা সচল রাখেন অধিনায়ক টম লাথাম এবং ডেভন কনওয়ে।

তবে এই দুইজনের ৬৩ রানের পার্টনারশিপ ভাঙ্গেন পার্টটাইম বোলার সৌম্য সরকার। পয়েন্টে দাঁড়িয়ে থেকে দুর্দান্ত ক্যাচ নেন মেহেদী হাসান মিরাজ। ১৮ রান করে সৌম্য সরকারের বলে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক টম লাথাম।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ২৪.৪ ওভারে ৪ উইকেটে ১২৩ রান সংগ্রহ করেছে নিউজিল্যান্ড।

ইতিমধ্যেই সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচে জয়লাভ করে সিরিজে ২-০ ব্যবধানে এগিয়ে রয়েছে নিউজিল্যান্ড।নিউজিল্যান্ডের একাদশে এসেছে একটি পরিবর্তন। ইনজুরি থেকে দলে ফিরেছেন দলের অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান রস টেলর। উইল ইয়ংয়ের পরিবর্তে একাদশে সুযোগ পেয়েছেন তিনি।

বাংলাদেশের একাদশ: তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), লিটন দাস, সৌম্য সরকার, মোহাম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহীম (উইকেটরক্ষক), মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মেহেদি হাসান মিরাজ, শেখ মেহেদি হাসান, রুবেল হোসেন, মোস্তাফিজুর রহমান এবং তাসকিন আহমেদ।





নিউজিল্যান্ডের একাদশ: মার্টিন গাপটিল, হেনরি নিকলস, ডেভন কনওয়ে, টম লাথাম (অধিনায়ক ও উইকেটরক্ষক), রস টেলর, জেমস নিশাম, ড্যারেল মিচেল, মিচেল স্যান্টনার, ম্যাট হেনরি, কাইল জেমিসন এবং ট্রেন্ট বোল্ট।