নাঈম শেখের সেঞ্চুরির পরও জিততে পারল না বেক্সিমকো ঢাকা। চতুর্থ দল হিসেবে প্লে-অফ নিশ্চিত করল ফরচুন বরিশাল

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের আজকের দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে বেক্সিমকো ঢাকাকে ৮ প্লে-অফ নিশ্চিত করেছে ফরচুন বরিশাল। আগে ব্যাট করে চার উইকেট হারিয়ে ১৯৩ রান সংগ্রহ করে ফরচুন বরিশাল। জবাবে ব্যাট করতে নেমে নাঈম শেখের সেঞ্চুরির পরও জিততে পারেনি বেক্সিমকো ঢাকা। ২ রানে হেরেছে বেক্সিমকো ঢাকা।

টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালই করে দুই ওপেনার তামিম ইকবাল এবং সাইফ হাসান। উদ্বোধনী জুটিতেই দুইজন যোগ করেন ৫৯ রান। দুইটি চারের সাহায্যে ১৯ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক তামিম ইকবাল।

তামিমের উইকেট তুলে নেন আল-আমিন (জুনিয়র)। ইনিংসে বড় করতে পারেননি পারভেজ হোসেন ইমন। মুক্তার আলীর বলে ১৩ রান করে প্যাভিলিয়নে ফিরেছেন তিনি। তবে অন্য প্রান্ত থেকে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন সাইফ হাসান।

৮ টিচার এর সাহায্যে ৪১ বলে হাফ সেঞ্চুরি করেছেন তিনি। হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেওয়ার পরের ওভারেই রুবেল হোসেনের প্রথম বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন সাইফ হাসান। তবে এদিন বরিশালের হয়ে ইনিংস বড় করেছেন তৌহিদ হৃদয় এবং আফিফ হোসেন। বিধ্বংসী ব্যাটিং করেছেন এই দুই জন ব্যাটসম্যান।





২৫ বলে হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেন আফিফ হোসেন। একটি চার এবং ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৫০ করে অপরাজিত থাকেন আফিফ হোসেন। অন্যপ্রান্তের ২২ বলে দুটি চার এবং চারটি ছক্কা সাহায্যে ৫১ রান করে অপরাজিত থাকেন তৌহিদ হৃদয়। ৩৯ বলে ৯১ রানের পার্টনারশিপ গড়ে তোলেন এই দুই ব্যাটসম্যান।

১৯৪ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে দুই ওপেনার মোহাম্মদ নাঈম শেখ এবং সাব্বির রহমান। তবে দলীয় ৫২ রানের মাথায় প্রথম উইকেটের পতনের পর ৬২ রানের মধ্যে আরও দুটি উইকেট হারিয়ে চাপে পড়ে বেক্সিমকো ঢাকা। তিনটি উইকেট তুলে নেন সোহরাওয়ার্দি শুভ।

প্রথমে ১৯ রান করা সাব্বির রহমানকে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। এরপর মুশফিকুর রহিম ৫ এবং আলামিন শূন্য রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। তবে ম্যাচের মোড় ঘুরিয়ে দেন মোহাম্মদ নাঈম শেখ এবং ইয়াসির আলী রাব্বি।

হাফ সেঞ্চুরি তুলে নেয়ার পর বিধ্বংসী ব্যাটিং করতে থাকেন মোহাম্মদ নাঈম শেখ। ৬০ বলে ৮ টিচার এবং ৭ টি ছক্কার প্রথম টি-টোয়েন্টি সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন নাঈম শেখ। সেঞ্চুরি পরে ১০৫ রান করে সুমন খানের বলে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন নাঈম শেখ।

শেষ ওভারে জয়ের জন্য ঢাকায় প্রয়োজন ছিল ১৭ রানের। তবে ততক্ষণে রান রেট পয়েন্ট প্লে-অফ নিশ্চিত করে ফেলেছে ফরচুন বরিশাল। ২৮ বলে ১ টিচার এবং দুটি ছক্কার সাহায্যে ৪১ রান করে শেষ ওভারে রান আউট হন ইয়াসির আলী রাব্বি। ২ রানে জয়লাভ করে বরিশাল।

বেক্সিমকো ঢাকা একাদশ : মুশফিকুর রহীম (অধিনায়ক, উইকেটরক্ষক), মোহাম্মদ নাইম শেখ, আলআমিন জুনিয়র, আকবর আলী, সাব্বির রহমান, মুক্তার আলি, রুবেল হোসেন, রবিউল ইসলাম রবি, ইয়াসির আলি রাব্বি, শফিকুল ইসলাম ও নাসুম আহমেদ।





ফরচুন বরিশাল একাদশ : তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), সাইফ হাসান, মেহেদি হাসান মিরাজ, তাসকিন আহমেদ, সুমন খান, আফিফ হোসেন ধ্রুব, তৌহিদ হৃদয়, মাহিদুল ইসলাম অঙ্কন (উইকেটরক্ষক), পারভেজ হোসেন ইমন, সোহরাওয়ার্দি শুভ ও কামরুল ইসলাম রাব্বি।