মেহেদী হাসানের দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহীর লড়াকু পুঁজি।

বঙ্গবন্ধু টি-টোয়েন্টি টুর্নামেন্টের আজকের দিনের দ্বিতীয় ম্যাচে টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ফরচুন বরিশাল। টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালোই করে দলের দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান নাজমুল হোসেন শান্ত এবং আনিসুল ইসলাম ইমন। তাদের দুইজনের ৩৯ রানের পার্টনারশিপ ভাঙেন ফাস্ট বোলার আবু জায়েদ রাহী।

১৯ বলে দুটি চার এবং একটি ছক্কায় সাহায্যে ২৪ রান করে প্যাভিলিয়নে ফেরেন অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। ৬ রান করে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে প্যাভিলিয়নে ফেরেন রনি তালুকদার। ব্যাটিংয়ে নেমে ছক্কা হাঁকিয়ে রানের খাতা খোলেন মোহাম্মদ আশরাফুল।

তবে দুর্ভাগ্যজনকভাবে রান আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তিনি। দলীয় ৬২ রানের মাথায় ২৪ রান করে মেহেদী হাসান মিরাজের বলে আউট হন আনিসুল ইসলাম ইমন। পরের ওভারেই কাজী নুরুল হাসান সোহানের উইকেট তুলে নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি।

৬৩ রানের মধ্যে ৫ উইকেট হারিয়ে বিপদে পড়ে মিনিস্টার গ্রুপ রাজশাহী। তবে এই দিনে রাজশাহী হয়ে দুর্দান্ত ব্যাটিং করেছেন মেহেদী হাসান। তাকে যোগ্য সঙ্গ দিয়েছেন ফজলে মাহমুদ। এই দুইজনের ৬৫ রানের পার্টনারশিপ ভাঙেন তাসকিন আহমেদ। ৩২ বলে তিনটি চারের সাহায্যে ৩১ রান করে আউট হন ফজলে মাহমুদ।

ইনিংসের শেষ ওভারে ৩টি উইকেট তুলে নেন কামরুল ইসলাম রাব্বি। প্রথম বলেই ১ রান করা ফরহাদ রেজা উইকেট তুলে নেন তিনি। এর পরের বলেই আউট হয়ে যান মেহেদী হাসান। ২৩ বলে তিনটি ছক্কা সাহায্যে ৩৪ রান করেন মেহেদী হাসান। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৯ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান সংগ্রহ করে রাজশাহী।

মেহেদী হাসান মিরাজ দুইটি, আবু জায়েদ রাহি ও তাসকিন আহমেদ একটি এবং কামরুল ইসলাম রাব্বি ৪ টি উইকেট লাভ করেন।

বরিশাল একাদশ: মেহিদী হাসান মীরাজ, তামিম ইকবাল (অধিনায়ক), পারভেজ হোসেন ইমন, আফিফ হোসেন, তৌহিদ হৃদয়, ইরফান শুক্কুর, মাহিদুল ইসলাম আনকন, আবু জায়েদ, সুমন খান, তাসকিন আহমেদ, কামরুল ইসলাম রাব্বি।





রাজশাহী একাদশ: নাজমুল হোসেন শান্তা (অধিনায়ক), আনিসুল ইসলাম ইমন, রনি তালুকদার, মোহাম্মদ আশরাফুল, ফজলে মাহমুদ, নুরুল হাসান, মাহেদী হাসান, ফরহাদ রেজা, রেজাউর রহমান, মুকিদুল ইসলাম, এবাদত হোসেন।