রোহিত শর্মার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে আইপিএলের পঞ্চম শিরোপা ঘরে তুলল মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ আইপিএল-এর রেকর্ড পাঁচবার চ্যাম্পিয়ন হলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ‌আজ আইপিএলের ফাইনালে দিল্লি ক্যাপিটালসকে হেসেখেলেই ৫ উইকেটে হারিয়েছে রোহিত শর্মার মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স। ‌সেইসাথে আইপিএলের প্রথম দল হিসেবে ব্যাক-টু-ব্যাক চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করলো মুম্বাই ইন্ডিয়ান্স।

ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে (আইপিএল) মঙ্গলবার ফাইনাল ম্যাচে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বিপক্ষে টস জিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ৭ উইকেটে ১৫৬ রান সংগ্রহ করে দিল্লি ক্যাপিটালস। জবাবে ব্যাট করতে নেমে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের টপ অর্ডার ব্যাটসম্যানদের কাছে পাত্তাই পায়নি দিল্লি ক্যাপিটালসের বোলাররা।

ফাইনালে দিল্লি ক্যাপিটালস দেওয়া ১৫৭ রানের টার্গেটে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা দুর্দান্ত করে দুই ওপেনার ব্যাটসম্যান রোহিত শর্মা এবং কুইন্টন ডি কক। ইনিংসের প্রথম থেকেই দিল্লি ক্যাপিটালস-এর বোলারদের ওপর চড়াও হয়ে খেলতে থাকে এই দুই ওপেনার।

দলীয় ৪৫ রানের মাথায় ১২ বলে ২০ রান করে মার্কাস স্টোইনিস বলে আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন কুইন্টন ডি কক। ব্যাটিংয়ে নেমে রোহিত শর্মাকে ভালোই সাপোর্ট দেয় ব্যাটসম্যান সূর্যকুমার যাদব।

তবে দলীয় ৯০ রানের মাথায় ভুল বোঝাবুঝির কারণে ১৯ রান করে রান আউট হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন সূর্যকুমার যাদব। তবে আজ ফাইনালে ব্যাট হাতে দুর্দান্ত ছিলেন অধিনায়ক রোহিত শর্মা। ৩৬ বলে তুলে নেন হাফ সেঞ্চুরি। রোহিত শর্মার সঙ্গে ব্যাটিংয়ে নেমে হাল ধরেন ঈশান কিশান।

দলকে জয়ের বন্দরে পৌঁছে দিয়ে আউট হন রোহিত শর্মা। ৫১ বলে ৫টি চার এবং ৪টি ছক্কার সাহায্যে ৬৮ রান করে আউট হন রোহিত শর্মা। ৩ বলে ৯ রান করে ক্যারিন পোলার্ড আউট হলেও শেষ করেন‌ ঈশান কিশান। অপর প্রান্তে ১৯ বলে ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন ঈশান কিশান।

দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে এদিন ব্যাটিংয়ে নেমে প্রথম ওভারেই ওপেনার মার্কাস স্টয়নিসকে হারায় দিল্লি। ট্রেন্ট বোল্টের করা ওভারের প্রথম বলেই উইকেটরক্ষকের হাতে ধরা পড়েন তিনি। এরপর তৃতীয় ওভারে এসে অজিঙ্কা রাহানেকেও উইকেটরক্ষকের হাতে ক্যাচ বানিয়ে ফেরান বোল্ট।

চতুর্থ ওভারে শিখর ধাওয়ানকে বোল্ড করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরান জয়ন্ত যাদব। এরপর রিশাব পান্তকে সঙ্গে নিয়ে দলের ইনিংস গড়তে থাকেন অধিনায়ক শ্রেয়াস আয়ার। দুজনে ৯৬ রানের পার্টনারশিপ গড়েন।

১৭তম ওভারে পান্ত আউট হয়ে গেলে ভাঙে এই জুটি। পান্ত ফেরার আগে ৩৮ বলে ৫৬ রান করেন। পরের ব্যাটসম্যানরা সুবিধা করতে পারেননি। ইনিংস শেষে শ্রেয়াস আয়ার ৫০ বলে ৬৫ রান করে অপরাজিত থাকেন।





মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সের বোলারদের মধ্যে ট্রেন্ট বোল্ট ৩টি, জয়ন্ত যাদব ১টি ও নাথান কুল্টার-নাইল ২টি করে উইকেট শিকার করেন। দিল্লি এবার প্রথমবার ফাইনালে উঠেছে। অন্যদিকে, মুম্বাই এর আগে চারবার শিরোপা জিতেছে। লিগ পর্ব শেষে মুম্বাই পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে ছিল। আর দিল্লি ছিল দুই নম্বরে। প্রথম কোয়ালিফায়ার ম্যাচে দিল্লিকে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল মুম্বাই।